সিসিলি উপকূলে সেই বোটডুবিতে নিহতদের মধ্যে বাংলাদেশীও রয়েছেন

সিসিলি উপকূলে গত বছর এপ্রিলে অভিবাসীবাহী বোটডুবিতে নিহতদের মধ্যে বাংলাদেশীও ছিলেন। তবে তাদের সংখ্যা কত তা জানা যায় নি। ওই বোটডুবিতে ৬৭৫ জন অভিবাসী ডুবে মারা যান। এর মধ্যে ছিলেন ইথিওপিয়া, ইরিত্রিয়া, বাংলাদেশ, সুদান, সোমালিয়া, মালি, গাম্বিয়া, সেনেগাল, আইভরি কোস্ট ও গায়ানার নাগরিক। ডুবে যাওয়া ওই বোট উদ্ধার করে সবেমাত্র ২৯৭টি মৃতদেহ সনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে নারী ও ছোট ছোট শিশু। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ডুবে যাওয়া বোটের ভিতর থেকে নিহত ৬৭৫ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে ইতালি। দেশটির নৌবাহিনী বৃহস্পতিবার বলেছে, ভূমধ্যসাগরের ওই বিপর্যয় ছিল ভয়াবহ। সেখান থেকে তারা মৃতদেহ উদ্ধারে সক্ষম হয়েছেন। কয়েক শত অভিবাসীকে নিয়ে সিসিলি উপকূলে ডুবে যায়। ইতালির নৌ কমান্ডো নিকোলা ডি ফেলিসি সিসিলি থেকে সাংবাদিকদের বলেছেন, সব মিলে আমরা ৬৭৫টি মৃতদেহের ব্যাগ উদ্ধার করেছি। এসব মৃতদেহ সহ বোটটি ৩৭০ মিটার গভীরে নিমজ্জিত ছিল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ভূমধ্যসাগরে এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ ট্রাজেডি। পর্তুগালের একটি বাণিজ্যিক জাহাজের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ডুবে যায় এই বোটটি। মিলানে ল্যাবানফ ফরেনসিক প্যাথলজি ল্যাবরেটরির প্রধান ক্রিশ্চিনা ক্যাট্টনিও উদ্ধার করা মৃতদেহ সনাক্ত করার কাজ করেছেন। মৃতদেহের সঙ্গে থাকা ডকুমেন্ট, তাদের কাপড়চোপড় ও অন্যান্য ডকুমেন্টের ভিত্তিতে এগুলো সনাক্ত করেছেন তারা।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: