রিওতে সব অভিজ্ঞতা ঢেলে দিতে চান সিদ্দিক

এদেশের অনেক অ্যাথলেটই অনুগ্রহের ওয়াইল্ড কার্ড পেয়ে অংশ নিয়েছেন অলিম্পিক গেমসে। এবারও শুটার আবদুল্লাহ হেল বাকী, সাঁতারু মাহফিজুর রহমান সাগর, সোনিয়া আক্তার টুম্পা, শ্যামলীরা যাচ্ছেন একই পন্থায়। এদের সঙ্গী এবার গল্‌ফার সিদ্দিকুর রহমান। তবে অন্যদের মতো তিনি কিন্তু কারও দয়ায় অলিম্পিকে অংশ নিতে যাচ্ছেন না। তিনি যাচ্ছেন ইতিহাস গড়ে প্রথম বাংলাদেশি ক্রীড়াবিদ হিসেবে সরাসরি যোগ্যতা অর্জন করে। এ কারণেই সিদ্দিকের উচ্ছ্বাসটা একটু অন্য রকম। ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ খ্যাত অলিম্পিক গেমসে নিজেকে উজাড় করে দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন দেশসেরা এই গল্‌ফার। স্বপ্নের গেমসে অংশ নিতে ব্রাজিল যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আগামী ২রা আগস্ট রিও’র উদ্দেশে দেশ ছাড়বেন সিদ্দিকুর। নিজের অনুভূতি জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘২০১০ থেকে পেশাদার গল্‌ফ সার্কিটে খেলার পর আমার যে অভিজ্ঞতা তার সবকিছু মিলিয়ে উজাড় করে দেবো রিও অলিম্পিকে।’
দীর্ঘ দেড় যুগ ধরেই গল্‌ফের সঙ্গে যুক্ত সিদ্দিকুর রহমান। ২০০৫ পর্যন্ত সৌখিন গল্‌ফার হিসেবে এশিয়ায় ১২টি ইভেন্টে শিরোপা জিতেছেন তিনি। সেগুলোর মধ্যে বাংলাদেশে পাঁচটি, দু’টি করে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও নেপাল এবং একবার ভারতে শিরোপা জেতেন। ২০০৬-এ পেশাদার গল্‌ফ জগতে প্রবেশ করেন সিদ্দিক। অংশ নেন ভারতের প্রফেশনাল গল্‌ফ ট্যুরে। এরপর কেবলই এগিয়ে যাওয়ার পালা পাঁচ ফুট পাঁচ ইঞ্চি উচ্চতার এই গল্‌ফারের। ক্যারিয়ারে দুটি এশিয়ান ট্যুরের ট্রফিও জেতেন ১৯৮৪ সালে জন্ম নেয়া সিদ্দিকুর। ২০১০ সালের ১লা আগস্ট ব্রুনাই ওপেন এবং ২০১৩ সালের ১০ই নভেম্বর ভারতের হিরো ইন্ডিয়ান ওপেন এশিয়ান ট্যুর শিরোপা জেতেন তিনি। প্রথম পেশাদার গল্‌ফার হিসেবে লাল সবুজের পতাকা ওড়ান বিদেশে। তখন থেকে অলিম্পিকে খেলার স্বপ্ন দেখতে থাকেন এই দেশসেরা গল্‌ফার। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সরাসরি অলিম্পিকে অংশ নেয়ার অনুভূতি জানিয়ে সিদ্দিকুর বলেন- এটা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। খুব ভালো লাগছে, স্বপ্ন পূরণ হওয়ায়। এমন বড় আসরে খেলার জন্য দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হয়েছে আমাকে। যার ফলে অলিম্পিকের মতো আসরে প্রথমবার খেলতে যেতে পারছি। তবে আমার ভাগ্য ভালো। কারণ প্রথমবার খেলতে যাচ্ছি, অথচ কোনো ওয়াইল্ড কার্ড নয়, সরাসরি যোগ্যতাবলেই খেলতে পারছি।’ গত বছর ইনজুরিতে খুব বেশি কিছু করে দেখাতে পারেননি।  সেই আক্ষেপ নিয়ে তিনি বলেন, ‘২০১৪-১৫ সালে ইনজুরির কারণে প্রত্যাশা মতো খেলতে পারিনি। তবে সেই ইনজুরি কাটিয়ে উঠেছি। সেই সঙ্গে আমার খেলা আরো উন্নত করতে বেশকিছু পদক্ষেপও নিয়েছি। এর প্রতিফলন আশা করি রিওতে দেখাতে পারবো। আমার আত্মবিশ্বাস এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি।’ এসময় সিদ্দিকুর জানান, ২৪শে জুলাই থাইল্যান্ডে একটি টুর্নামেন্ট খেলতে যাবেন তিনি। সেখান থেকে ফিরেই ২রা আগস্ট রিওতে চলে যাবেন এশিয়ান ট্যুরের শিরোপা জেতা প্রথম ও একমাত্র বাংলাদেশি এই গল্‌ফার। তার ইচ্ছা রিওতে লাল সবুজের পতাকা ওড়ানোর। সেটার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন সিদ্দিকুর। আগামী ৫ই আগস্ট ব্রাজিলে রিওডি জেনেরিওতে শুরু হবে বিশ্বের সর্ব বৃহৎ এই ক্রীড়াযজ্ঞ।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: