রামগঞ্জ ভিক্ষুকের ঘরে ২ লাখ টাকা, ১৭০ পিস শাড়ি

স্টাফ রিপোর্টার রামগঞ্জ : লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলায় হনুফা বেগম (৫৫) নামে এক ভিক্ষুকের মৃত্যুর পর তার বসতঘর খুঁড়ে শতাধিক থলেতে রাখা প্রায় ২ লাখ টাকা ও ১৭০ পিস শাড়ি উদ্ধার করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার ২৮ জুলাই  দুপুরে উপজেলার উত্তরপাড়া গ্রামে হনুফার ঘরের মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা গর্ত থেকে এসব টাকা ও শাড়ি উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও ওই ঘরে ধান-চালে ভরা বস্তাসহ বিভিন্ন মালামাল পাওয়া যায়।
ভিক্ষুক হনুফা বেগম রামগঞ্জ উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের পাটোওয়ারী বাড়ির মৃত ইসমাইল হোসেনের মেয়ে ও স্বামী পরিত্যক্তা ছিলেন।
স্থানীয়রা জানায়, বিয়ের কয়েক মাস পরে স্বামী হনুফাকে বাবার বাড়িতে রেখে চলে যান। বাবা-মায়ের মৃত্যুর পর হনুফা আশ্রয় পান নানা বাড়িতে।
নানা-নানীর মৃত্যুর পর নিরুপায় হয়ে ভিক্ষাবৃত্তি শুরু করেন তিনি। মঙ্গলবার ২৬ জুলাই  রাতে অসুস্থ হয়ে মারা যান হনুফা। বুধবার স্থানীয়রা তাকে দাফন করেন।
এদিকে, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ির লোকজন ঘরে ঢুকে কৌতুহলবশত মাটি খুঁড়লে বেরিয়ে আসে পলিথিনে মোড়ানো ১৭০ পিস নতুন শাড়ি। ঘরের ভিতর ছোট-ছোট গর্ত থেকে বেরিয়ে আসে টাকা-পয়সার থলে। পরে গণনা করে ১ লাখ ৮৭ হাজার টাকা পাওয়া যায়।
এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন হনুফার ঘরে টাকার থলে দেখতে ভিড় করেন।
স্থানীয় নোয়াগাঁও উইনিয়নের উত্তরপাড়ার ইউপি সদস্য কাশেম সর্দার  জানান, হনুফার আপন কেউ না থাকায় ওই বাড়ির এক মুরুব্বির জিম্মায় টাকা ও শাড়িসহ অন্যান্য মালামাল রাখা হয়েছে।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: