নিহত জঙ্গিদের মরদেহ ঢামেক মর্গে

ঢাকা ব্যুরো: রাজধানীর কল্যাণপুরে পুলিশি অভিযানে নিহত জঙ্গিদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে নিয়ে আসা হয়েছে।
মঙ্গলবার ২৬ জুলাই  বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে মরদেহবাহী ৫টি অ্যাম্বুল্যান্স কল্যাণপুরের জঙ্গি আস্তানা থেকে ঢামেকের উদ্দেশে রওনা হয়। বিকেল ৫টা ৫৫ মিনিটে মরদেহ নিয়ে গাড়িগুলো ঢামেকে প্রবেশ করে।
এর আগে মঙ্গলবার ভোর ৫টা ৫১ মিনিটে কল্যাণপুরের জাহাজ বিল্ডিং নামের বাড়িটিতে অভিযান চালায় সোয়াত, র‌্যাব, পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এসময় তাদের সঙ্গে গোলাগুলিতে ৯ জঙ্গি নিহত হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক জঙ্গিসহ ২ জনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে পুলিশ। আহত জঙ্গিকে ঢামেকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে কারো নাম পরিচয়ই জানাননি ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মারুফ হাসান।
পরে ওই বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে ৪ থেকে ৫ কেজি বিস্ফোরক, ৪টি পিস্তল, ২১ রাউন্ড গুলি, ১টি তলোয়ার, ৩টি অটোমেটিক ছুরি, ৭টি ছোট ছুরি এবং বেশ কিছু আইএস লেখা কালো পতাকা উদ্ধার করা হয়।
এর আগে, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার রাত ১২টার দিকে কল্যাণপুরের ৫ নম্বর রোডের জাহাজ বিল্ডিং নামের ৫ তলা বাড়িটিতে অভিযান চালায় পুলিশ।
সে সময় বাড়ির তিনতলা পর্যন্ত ওঠার পর পাঁচতলা থেকে দুই যুবক নেমে এসে গুলি চালালে এক পুলিশ কর্মকর্তা হাতে  গুলিবিদ্ধ হন। একই সঙ্গে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ককটেলও নিক্ষেপ করে।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে হাসান নামে এক জঙ্গি আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।
রাত প্রায় সাড়ে ৩টা পর্যন্ত পুলিশের সঙ্গে জঙ্গিদের গুলি বিনিময় চলে। পরে পুরো এলাকাটি ঘিরে রেখে ভোরে সোয়াত, পুলিশ, র‌্যাব ও ডিবি যৌথভাবে অভিযান চালায়।
মঙ্গলবার সকাল ৭টায় ‘স্টর্ম-টোয়েন্টি সিক্স’ কোডনেমের এই অভিযান শেষ করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মারুফ হাসান এসব তথ্য জানান।


শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: