তুরস্কে জরুরি অবস্থা জারি

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট: তুরস্কে তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়েপ এরদোয়ান। বুধবার রাতে দেশটির শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে টেলিভিশনে এ ঘোষণা দেন তিনি।
রাজধানী আঙ্কারায় জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল এবং মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠকের পর দেশ জুড়ে তিন মাসের জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। ওই ঘোষণায় তিনি বলেন, তুরস্কে ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের জন্যে দায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্যই এই জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। যদিও এই জরুরি অবস্থা সংসদকে পাশ কাটিয়ে যাওয়া এবং সাধারণ মানুষের অধিকার খর্ব করার ক্ষমতা দিচ্ছে প্রেসিডেন্টকে। এ সময় তিনি গণতন্ত্রের প্রতি যে কোনো ধরনের হুমকি মোকাবিলা প্রতিশ্রুতির জনগণের মৌলিক স্বাধীনতা রক্ষার ঘোষণা দেন।
অভ্যুত্থান চেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে ইতিমধ্যে প্রায় ১০ হাজার লোকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে ৬ শতাধিক স্কুল। এছাড়া বরখাস্ত করা হয়েছে বিচারক, শিক্ষক, সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীসহ ৫০ হাজারের মত মানুষকে। এদের মধ্যে ১৫৭৭ জন বিশ্ববিদ্যালয় ডিন, ৮ হাজার পুলিশ এবং ১৫শ অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী। বুধবার উচ্চপদস্থ ৯৯ সেনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। নির্বাসিত নেতা গুলানের সঙ্গে সম্পর্ক থাকার অভিযোগ তুলে ৩৪ সাংবাদিকের প্রেস পরিচয়পত্র ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। লাইসেন্স কেড়ে নেয়া হয়েছে আরো ২১ হাজার শিক্ষকের।
বুধবার টেলিভিশন ভাষণে প্রেসিডেন্ট আবারো যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ধর্মীয় নেতা ফতুল্লা গুলেনকেই ব্যর্থ অভ্যুত্থানের মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে দায়ী করেছেন।
যদিও এর আগে তার এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন গুলেন। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরি গুলেনের বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ থাকলে তা প্রকাশের আহ্বান জানিয়েছেন।


শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: