‘চলচ্চিত্র কিংবা নাটকে এখন ভালো স্ক্রিপ্টের দারুণ অভাব’

গুণী অভিনেত্রী মৌসুমী দর্শকের মনিকোঠায় এখনও রাণীর মত বাস করছেন। তার কাজ দেখার জন্য দর্শকরা আজও অপেক্ষা করেন। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ‘প্রিয়দর্শিনী’ বলা হয় এ অভিনেত্রীকে। নব্বই দশক থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত তিনি সমান জনপ্রিয়। ২২ বছরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারে তিনি উপহার দিয়েছেন প্রায় দুই শ’র মতোছবি। তবে বর্তমানে ভালো চিত্রনাট্যের অভাবে অনেক কাজই করছেন না তিনি। এমনকি ছোটপর্দায়ও তেমন কাজ করছেন না তিনি। মৌসুমী এ প্রসঙ্গে
 চলচ্চিত্র কিংবা নাটকে এখন ভালো স্ক্রিপ্টের দারুণ অভাব। পেশাদার স্ক্রিপ্ট রাইটার পাচ্ছি না আমরা। আর তাদের হয়তো পারিশ্রমিকও অনেক কম। তাই যারা একটু ক্রিয়েটিভ তারা বিজ্ঞাপনে চলে যাচ্ছে। প্রতিদিনই কোনো না কোনো কাজ আসে কিন্তু স্ক্রিপ্ট পড়ার পরে আর সেই কাজ করতে ইচ্ছে হয় না। এবারের কুরবানী ঈদের জন্য তৌকীর আহমেদের বিপরীতে ‘মেঘ বসন্ত’ নামে একটি টেলিছবিতে কাজ করা হয়েছে। এটা পরিচালনা করেছেন সাজিন আহমেদ বাবু। আশা করছি, এ কাজটি দর্শকরা পছন্দ করবেন। এছাড়া আরও একটি গল্পে কাজ করার কথা চলছে। এদিকে, মৌসুমী অনেকদিন ধরেই নতুন চলচ্চিত্রে কাজ করছেন না। তবে নতুন কাজের বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করছেন। সোহানুর রহমান সোহানের পরিচালনায় একটি ছবির কাজ শিগগিরই শুরু করতে যাচ্ছেন তিনি। ছবির নাম ‘আমার বাংলাদেশ’। এ ছবিটি নিয়ে মৌসুমী বলেন, এটি একটি শিশুতোষ চলচ্চিত্র। এখানে ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, আমাদের সংস্কৃতি, শিক্ষা, কৃষি, সাহিত্যসহ নানা বিষয় তুলে ধরা হবে। ঢাকার বাইরে ছবিটির কাজ শুরু হবে। গেল ঈদে তেমন কোনো টিভি বা সামাজিক অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি তাকে। এছাড়া রমজানেও বিভিন্ন ইফতার অনুষ্ঠান থাকলেও শুধু চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আয়োজনে দেখা মিলেছে তার। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এবার একটু একাকী কেটেছে ঈদ। কোনোকিছুই ভালো লাগছিল না। আর আমার ছেলে ফারদিনও দেশে নেই। সবকিছু মিলে কোনো কাজ করতে ইচ্ছে করেনি। চুপচাপ বাসাতেই ছিলাম। চলচ্চিত্রে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে মৌসুমী গত ১১ই মে   শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী ক্যাটাগরিতে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৪’ গ্রহণ করেছেন। মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘তারকাঁটা’ ছবিতে  দূর্দান্ত অভিনয়ের জন্য তাকে এ পুরস্কার দেয়া হয়। এদিকে বদিউল আলম খোকনের ‘হারজিৎ’ নামে একটি ছবির কাজের বিষয়ে বেশকিছু দিন থেকে শোনা যাচ্ছিল মৌসুমীর নাম। এ ছবিতে  কি চরিত্রে অভিনয় করবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ছবিটি নিয়ে পরিচালকের সঙ্গে চুড়ান্ত কোনো কথা হয়নি। ছবির চরিত্র, পোশাক সবকিছু নিয়ে আগে পরিচালকের সঙ্গে বসতে চাই। আমি হঠাৎ করেই কোনো ছবিতে কাজ করতে চাই না। এদিকে খুব শিগগিরই তার একটি নতুন বিজ্ঞাপন প্রচারে আসবে বলে জানালেন মৌসুমী। রোজার দুইদিন আগে এর কাজ  করেছেন তিনি। এটি নির্দেশনা দিয়েছেন নাফিস কামাল। এ কাজটি নিয়ে মৌসুমী বলেন, সূর্য নামে নতুন একটি ডিটারজেন্টের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করলাম। কোক স্টুডিও, ধানমন্ডিসহ বেশকিছু জায়গায় এর শুটিং হয়েছে। আশা করছি, এ কাজটি দর্শকরা পছন্দ করবেন। অন্যদিকে হাবিবুর রহমান হাবিব পরিচালিত ‘রাত্রীর যাত্রী’ নামে একটি ছবিতে কাজ করছেন মৌসুমী। এই ছবিটির কাজ এখনও ৪০ ভাগ বাকি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হিরোর ডেটের জন্য অপেক্ষা করছি। ছবিটিতে আমার বিপরীতে অভিনয় করছেন আনিসুর রহমান মিলন। তার সঙ্গে গ্রামের বেশ কিছু দৃশ্য বাকি রয়েছে। শুনলাম তিনি অনেক ব্যস্ত। তাই শুটিংয়ের জন্য তার তারিখ পাওয়া গেলেই এ ছবির কাজ  শেষ হবে। নারীকেন্দ্রিক গল্প থাকছে এ ছবিতে। আমার চরিত্রের নাম ময়না। সবকিছু মিলে মৌলিক একটি গল্প। তাই দর্শকরা এ ছবিটি পছন্দ করবেন বলে আশা করছি।


শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: