একই গতিতে শাহনাজ বেলী

দীর্ঘদিন ধরে ফোক গান করে আসছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী শাহনাজ বেলী। এই সময়ে ধারাবাহিকভাবে বেশকিছু জনপ্রিয় গান তিনি উপহার দিয়েছেন শ্রোতাদের। ফোকের বাইরে লালনের গানও তার কণ্ঠে শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। অ্যালবামের পাশাপাশি তিনি সবচেয়ে বেশি ব্যস্ত থাকেন স্টেজ নিয়ে। দেশ-বিদেশের স্টেজ শো নিয়ে নিয়মিতই তাকে ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়। একই গতিতে শো নিয়েই চলছে তার চলতি ব্যস্ততা। সব কিছু মিলিয়ে দিনকাল কেমন যাচ্ছে জানতে চাইলে এ শিল্পী বলেন, অনেক ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। যেহেতু আমি গানের শিল্পী তাই গান নিয়েই ব্যস্ততাটা বেশি। তবে আমি খুব উপভোগ করি কাজের মধ্যে থাকতে। গানের সঙ্গে থাকলে শ্রোতাদের ভালোবাসা পাই। আর শ্রোতাদের ভালোবাসা কে না চায়। বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে? শাহনাজ বেলী বলেন, মূল ব্যস্ততা শো নিয়ে। ক’দিন আগেই দেড় মাসের সফরে আমেরিকা গিয়েছিলাম। সেখানকার কয়েকটি রাজ্যে অনুষ্ঠান হয়েছে। এখন দেশের ভেতর শো করছি। ঈদের আগে তো রমজান মাসে শো তেমন একটা হয়নি। এখন আবার শুরু হয়েছে। ঢাকা ও বাইরের সব জেলাতেই শো করা হচ্ছে। এর বাইরে টিভি লাইভও করছি। সামনে তিনটি দেশে গান করতে যাবো। এর মধ্যে ঈদে কাতারে শো রয়েছে। আর তার পরপরই শো করতে যাবো কানাডা ও ইতালিতে। দীর্ঘদিন ধরে আপনার নতুন অ্যালবাম প্রকাশ হয়নি। নতুন অ্যালবাম কি করছেন? শাহনাজ বেলী বলেন, বিভিন্ন কারণে আসলে অ্যালবাম করা হয়নি। মূল কারণটা হলো অডিও ইন্ডাস্ট্রির বাজে অবস্থা। তবে এখন কাজ শুরু করেছি। আমি শাহ আবদুল করিমের গান নিয়ে একটি অ্যালবাম করছি। এর কাজ এখন চলছে। এর বাইরে রাধা রমনের গান নিয়েও অ্যালবাম করছি। এ দুটো অ্যালবামই চলতি বছর শ্রোতাদের হাতে তুলে দিতে পারবো বলে বিশ্বাস। এছাড়াও লালনের গান গাইতে আমি খুব স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। তাই লালনের গানের একটি পূর্ণ অ্যালবাম করার খুব ইচ্ছা। তবে লালনের অ্যালবাম সময় নিয়ে করতে চাই। আপনি তো দীর্ঘদিন ধরে ফোক গান করে আসছেন। এই সময়ে আমাদের দেশে ফোক গানের অবস্থান নিয়ে কি আপনি সন্তুষ্ট? শাহনাজ বেলী বলেন, ফোক গান শেকড়ের গান। ফোক গানের অবস্থান সব সময়ই সবার উপরে ছিল ও থাকবে। এখন হয়তো আগের মতো করে ফোক শিল্পী বের হয়ে আসছেন না। অথবা চর্চাটা আগের মতো নেই। তবে ফোক গান দিয়েই কিন্তু টিকে থাকতে হবে। সাময়িক জনপ্রিয়তার জন্য শেকড়কে ভুলে গেলে চলবে না। আর শুধু বাংলাদেশ নয়, সারা বিশ্বেই বাংলা ফোক গানের অবস্থান উপরে। বিভিন্ন দেশে আমি শো করতে গেলেই ফোক গানের কদর দেখতে পাই। এ প্রজন্মের শিল্পীদের গান কি শোনা হয়। তাদের গান কেমন লাগে? শাহনাজ বেলী বলেন, অনেকে ভালো করছে। তাদের মধ্যে মেধাও আছে। সেটা গায়কীর দিক দিয়ে হোক কিংবা সংগীতায়োজনের দিক দিয়ে। তবে তরুণ প্রজন্মের শিল্পীদের নিজস্ব গান খুব কম। স্টেজে অন্যের গানই তারা বেশি গাইছে। বিশেষ করে মৌলিক ফোক গানের দারুণ অভাব এখন। বেশির ভাগ শিল্পীই দেখা যাচ্ছে অন্যের গানই বেশি গাইছেন। অনেকে আবার রিমেক করছেন। রিমিক্স করছেন। আমি রিমেক ও রিমিক্সের একদমই পক্ষে নই। নিজের মৌলিক গান দিয়ে যোগ্যতা প্রমাণ করতে হবে। অন্যের গান রিমিক্স কিংবা রিমেক করে গাওয়ার মধ্যে কৃতিত্ব নেই। ভালো লাগা থেকে দু’ একটি গান গাওয়া যেতে পারে গানটির সম্পূর্ণ আবেদন ঠিক রেখে। এক্ষেত্রে যার গান তার অনুমতি নেয়াও উচিত। আসলে মৌলিক গানের বিষয়ে সচেতন হওয়া খুব জরুরি। কারণ, অন্যের গান গেয়ে বেশি দিন টিকে থাকা যায় না। আপনার মতো একমাত্র কন্যাও কি গান করছে? শাহনাজ বেলী বলেন, আমার মেয়ে আভা ও লেভেল করছে। ও গান করতে খুব পছন্দ করে। আমার সব গানই ও গাইতে পারে। ও গান করতে চায় বলেও আমাকে বলেছে। তবে আমি চাপিয়ে দিতে চাই না। ও পছন্দ মতো প্রফেশন বেছে নিক- সেটাই চাই।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: