অলিম্পিক থেকে ফিরেই কেনিয়ার তিন কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

স্পোর্টস রিপোর্ট: রিও অলিম্পিকে কেনিয়া দেখিয়েছে তাদের ইতিহাসের সেরা সাফল্য। কিন্তু অব্যবস্থাপনার জন্য রিওতে তাদের অংশগ্রহণই হুমকির মুখে পড়ে গিয়েছিল। আর এসব কারণেই দেশটির তিন অলিম্পিক কমিটি কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।
পূর্ব আফ্রিকার দেশটি ব্রাজিলের অলিম্পিক থেকে জিতেছে ৬টি সোনা, ৬টি রুপা ও ১টি ব্রোঞ্জ। সব মিলিয়ে পদক তালিকায় ১৫তম তারা। আর আফ্রিকার মধ্যে সেরা। অ্যাথলেটিক্সে তাদের অবস্থান ছিল আমেরিকার পরই, দ্বিতীয়। কিন্তু রিওতে যাওয়ার আগে তাদের ডোপিং ও সাংগঠনিক অনেক চ্যালেঞ্জ পার হতে হয়েছে। রিওতে গিয়েও ঝামেলার মধ্যে থাকতে হয়েছে।
শুক্রবার কেনিয়ার রিও অলিম্পিকের শেফ দ্য মিশন স্টিফেন আরাপ সই, জাতীয় অলিম্পিক কমিটির সহসম্পাদক জেমস চাচাকে নাইরোবি পুলিশ স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই সাথে নিয়ে যাওয়া হয় কমিটির মহাসচিব এফ কে পলকেও। রিও থেকে ফিরেই গ্রেপ্তার হয়েছেন তারা। আরেক কর্মকর্তা সুসান কামাউকে জিজ্ঞাসাবাদের পর ছেড়ে দেওয়া হয়।
গত চার বছরে ৪০ কেনিয়ান অ্যাথলেট ডোপ টেস্টে ধরা পড়েছেন। কেনিয়ার অলিম্পিক কমিটি কথা দিয়েও সমস্যা মেটাতে পারেনি। এপ্রিলে কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট ডোপিংকে অপরাধ হিসেবে সাব্যস্ত করে বিল সই করেন। বিশ্ব অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সির চাপেই তা করতে হয়। এটা করাতেও রিওর নিষেধাজ্ঞা এড়ানো গেছে। গেমসের সময় কেনিয়ার অলিম্পিক কমিটির এক সদস্যকে অ্যাথলেট সেজে ডোপিং টেস্ট দিতে যাওয়ার অভিযোগে দেশে পাঠানো হয়। অ্যাথলেটিক্স ম্যানেজারকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয় টাকার বিনিময়ে ড্রাগ টেস্ট পার করে দেওয়ার অভিযোগে। দুজনের কেউই অভিযোগ স্বীকার করেননি।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: