টনসিলের ব্যথা থেকে দ্রুত মুক্তি পেতে যা করবেন


: টনসিলের সমস্যা যেকোন বয়সেই হতে পারে। ছোট থেকে বড় সব বয়সের মানুষই এই সমস্যায় পড়তে পারেন। টনসিলে সংক্রমণ হয়ে গেলে তা বেশ সমস্যার সৃষ্টি করে। একে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় বলে টনসিলাইটিস।
জিহ্বার ভিতরের অংশে গলার দেওয়ালের দুপাশে যে গোলাকার পিণ্ড থাকে, সেটাকেই টনসিল বলা হয়। এটি দেখতে মাংসপিণ্ডের মতো হলে তা টিস্যু দিয়ে গঠিত। গলা অথবা নাকে জীবাণু সংক্রমণে এটি বাধা দেয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। এছাড়া এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে।
টনসিলে সংক্রমণ হলে মূলত গলা ব্যথা হয় এবং কোনও কিছু ঢোক গিলতে অসুবিধা হয়। ঠান্ডা লেগে যেহেতু এটির সমস্যা সাধারণভাবে হয়ে থাকে তাই কখনও দেহের তাপমাত্রা অনেক সময় বেশি থাকে। এছাড়া অনেক সময় গলার আওয়াজে পরিবর্তন, মাথা ব্যথা, ঘুম কম হওয়া এবং নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হতে পারে। ফলে এমন একটি অংশ নিজে অসুস্থ হয়ে পড়লে তার চিকিৎসার প্রয়োজন অবশ্যই রয়েছে। তাহলে জেনে নিন টনসিল থেকে বাঁচার উপায় :
০১. হলুদ : হলুদ সবসময়ই যেকোনও ধরনের প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। এতে থাকা উপাদান ব্যাকটেরিয়া জনিত ও ছত্রাক জনিত সংক্রমণ কমায়। ফলে গরম দুধে সামান্য হলুদ মিশিয়ে রাতে শোওয়ার আগে খান।
০২. লবণ পানি : গরম পানিতে এক চিমটি লবণ মিশিয়ে যতবার সম্ভব গার্গল করুন। এতে টনসিল থেকে মুক্তি পাবেন খুব সহজেই।
০৩. নিম : কয়েক চিমটে নিম পাউডার পানিতে গুলে ফুটিয়ে নিন। তাতে খানিকটা নুনও মেশাতে পারেন। ঠান্ডা হলে সেই পানি খেয়ে নিন। দিনে কয়েকবার খেলেই উপকার পাবেন।
০৪. দারুচিনি : ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ কমিয়ে টনসিল সারাতে দারুচিনির জুড়ি নেই। এক গ্লাস গরম পানিতে দারুচিনি গুড়ো ও এক চা চামচ মধু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ দিনে কয়েকবার খান। টনসিল সেরে যাবে।
০৫. তুলসী : তুলসীতেও অ্যান্টি ভাইরাল ও অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ভর্তি রয়েছে। যা টনসিল সারাতে বিশেষ ভূমিকা নেয়। কয়েকটি তুলসী পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে খেয়ে নিন। তাতে খানিক মধু মিশিয়ে খেলেও উপকার পাবেন।
০৬. চার্মোমাইল টি : চার্মোমাইল টি পানিতে ফুটিয়ে তাতে এক চা চামচ মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে খেলে টনসিল খুব সহজেই সেরে যেতে পারে।
০৭. মেথি : গরম পানিতে মেথি ফুটিয়ে সেই পানি দিয়ে গার্গল করুন। যতবার বেশি গার্গল করবেন, তত তাড়াতাড়ি টনসিল থেকে মুক্তি পাবেন।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: