বিবাহবিচ্ছেদের কথায় অবাক অপু, শাকিব বললেন এসব নিয়ে ভাবার সময় আমার নেই


ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসকে নিয়ে আবারো নতুন খবর। এর আগে বিয়ে ও সন্তানের খবর মিডিয়ার সামনে অপু বিশ্বাস জানালেও এবারের খবরটি ভিন্ন ধরনের। শোনা যাচ্ছে, শিগগিরই দেশীয় ছবির জুটি শাকিব খান আর নায়িকা অপু বিশ্বাসের দাম্পত্য জীবনের আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটতে যাচ্ছে। কিন্তু অপু বিশ্বাস এ বিষয়ে ভিন্ন কথা বললেন। তিনি আজ এ প্রসঙ্গে বলেন, শাকিবের পরিবারের সকলে আমাকে চেনেন। আমি তাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা কেউই এ বিষয়টি জানেন না। শাকিবের পরিবারের কেউই এসে তো বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে আমার সঙ্গে কথা বলেনি। বরং, আমি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের মারফতে বিবাহবিচ্ছেদের খবরটি জানছি। আর জেনে অবাক হচ্ছি! অপু আরো বলেন, আমার বিবাহবিচ্ছেদ হবে আর আমি জানবো না। শাকিব তো নিজে কোথাও বিবাহবিচ্ছেদের কথা বলেনি। তাহলে কি তৃতীয় কোনো পক্ষ এটা করছে। এমন কিছু হলে আমি শাকিবের কাছ থেকে সরাসরি শুনতে চাই। এসব করে তো অন্য কেউ দূর থেকে হাসছে। কারণ, এতে করে শুধু আমার সম্মান নষ্ট হচ্ছে না, শাকিবের সম্মানও তো এখানে জড়িত। এদিকে জানা যায়, অপুর বিশ্বাসের ওপর ভীষণ নাখোশ শাকিব খান। আর দিনের পর দিন তা বেড়েই চলেছে। কারণ, শাকিব যে কাজ পছন্দ করেন না, অপু নাকি প্রতিনিয়ত সেসব করে চলেছেন। এটা কতটা সত্যি? এমন কথার ভিত্তিতে অপু বিশ্বাস বলেন, আমি এমন কিছ্ইু করছি না। আমার সঙ্গে তো শাকিবের সরাসরি কোনো কথা হয় না। আর আমি জানি শাকিবের সঙ্গে ইন্ডাস্ট্রির সবার ঝামেলা যা ছিল ঠিক হয়ে গেছে। তাহলে আমি কারো সঙ্গে ছবিতে কাজ করলে তো শাকিবের সমস্যা থাকার কথা না। আর শাকিব এসব বিষয়ে তো সরাসরি ফোন করে কারো সঙ্গে কোনো কাজ করতে নিষেধ করেনি। আমি দূর থেকে কিভাবে বুঝবো? এদিকে বর্তমানে একটি ছবির শুটিংয়ে শাকিব খান দেশের বাইরে আছেন। ‘মাস্ক’ নামের এ ছবিতে তার সহশিল্পী কলকাতার নুসরাত। সেখানে যাওয়ার আগে বিবাহবিচ্ছেদ প্রসঙ্গে সবশেষ শাকিব বলেন, আমি এখন আমার কাজ নিয়ে ব্যস্ত। নতুন ছবির কয়েকটা কাজ হাতে নিয়েছি। এসব নিয়ে ভাবার সময় আমার নেই। আর বিবাহবিচ্ছেদ হলে আমি নিজেই সকলকে জানিয়ে দিব। উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ই এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তারা দুজন সমানতালে ছবির শুটিং করে গেছেন। এ বছর ১০ই এপ্রিল একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সেদিন সেখানে তিনি  বলেন, আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলেও আছে। এরপর শাকিব খানও সন্তান-বিয়ের বিষয়টি স্বীকার করেন। তবে এরপর থেকে দুজনের মধ্যে শুরু হয় সম্পর্কের টানাপড়েন। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় পৌঁছায় যে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস নিজেদের মধ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ করে দেন। শুধু ছেলে আব্রামের কারণে মাঝে মধ্যে দেখা হলেও এরপর আর এখন পর্যন্ত কথা হয়নি দুজনের।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: