চিরনিদ্রায় মহিউদ্দিন চৌধুরী


ডেস্ক রিপোর্ট- চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর জানাজা শেষ হয়েছে। শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রামের লালদীঘি ময়দানে লাখো মানুষের অংশগ্রহণে তার জানাজা সম্পন্ন হয়। এরপর নগরীর ষোলশহর দুই নম্বর গেইটের চশমা হিলের পারিবারিক কবরস্থানে তার বাবার কবরের পাশে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।
জানাজায় ইমামতি করেন মাওলানা আনিসুজ্জামান। এর আগে প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিনের মরদেহে গার্ড অব অনার দেয়া হয়। পরে পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তার মরদেহে শ্রদ্ধা জানানো হয়। 
এছাড়া চট্টগ্রামের দারুল ফজল মার্কেটে যে কার্যালয় থেকে বন্দরনগরীর নানা আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছেন এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী, সেখানেই তাকে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় শেষ বিদায় জানায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।
চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী (৭৩) বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে মারা যান (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি অনেক দিন ধরে হৃদরোগ, কিডনি জটিলতাসহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন।
তিনবার নির্বাচিত এই মেয়রের মৃত্যুতে চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মহিউদ্দিন চৌধুরীকে শেষবার দেখতে এসে মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল বলেন, আমরা একজন মহান নেতাকে হারিয়েছি। চট্টগ্রাম হারিয়েছে তার অভিভাবককে। তিনি ছিলেন সকলের নেতা। যেকোনো কঠিন সময়ে তিনি চট্টগ্রামবাসীর পক্ষে দাঁড়াতেন।
১৯৯৪ সালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর আরও দুই মেয়াদে ২০১০ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন মহিউদ্দিন। ওই বছর নিজের রাজনৈতিক শিষ্য এম মনজুর আলমের কাছে ভোটে হেরে মেয়র পদ হারান।
মনজুরের মেয়াদ শেষে ২০১৫ সালের সিটি নির্বাচনের আগেও মেয়র প্রার্থী হিসেবে মহিউদ্দিনের নাম শোনা যাচ্ছিল। তবে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা শেষপর্যন্ত মহিউদ্দিনের বদলে মনোনয়ন দেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাছিরকে।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: