স্ত্রীর প্রতি স্বামীর দায়িত্ব! ইসলাম কী বলে?


আমাদের সমাজে স্বামীর প্রতি স্ত্রীর করনীয় সম্পর্কে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়ে থাকে। অনেকেই ধরে নেয় একটি সংসারে স্ত্রীর কোন দাম নেই, যেন স্বামীর সংসারে খেটে খাওয়ার জন্যই তাদের আসা। যখন কোন সংসারে এটি প্রকট আকার ধারণ করে তখন শুরু হয় নানা ধরনের অশান্তি। এই অশান্তি থেকে মুক্তি লাভের জন্য ইসলামের কিছু দিকনির্দেশনা রয়েছে।
প্রখ্যাত সাহাবি হযরত ইবনে উমার (রা.) বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) বলেছেন, শুনে রাখ, তোমরা সকলেই প্রহরী বা রাখাল। আর সকলকেই তার অধীনস্থদের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হবে। ইমাম, নেতা, সরকার অর্থাৎ যিনি শাসন করেন সাধারণ মানুষকে, তাদেরকেও তার অধীনস্থদের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হবে। একজন পুরুষ একটি সংসারে প্রহরী হিসেবে থাকে। তাকেও তার অধীনস্থদের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হবে। একজন নারী তার স্বামীর সংসারের লোকদের এবং তার সন্তানদের প্রহরী। তাকেও তার অধীনস্থ লোকদের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হবে।  (বুখারি শরীফ) 
আলোচ্য হাদিসে মানুষের জীবনের সব স্তরের দায়িত্বশীলদের দায়িত্ব সম্পর্কে আলোকপাত করা হয়েছে।
ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় যে, জাতীয় উন্নতি প্রতিটি শিশুর প্রাথমিক শিক্ষার উপর নির্ভর করে থাকে। একটি শিশু তার মায়ের কাছ থেকে উত্তম চরিত্র ও উত্তম মন লাভ করতে পারে। এজন্য প্রতিটা সন্তানের উপর তার মায়ের প্রভাব সবচেয়ে বেশি। স্বামীর সংসারের সকল লোকজন, সন্তান সবার দায়িত্ব মায়ের উপর পরে। তাকেই সব দায়িত্ব নিতে হয়। আর তার স্বামী তাকে সব ধরনের সহায়তা করবে এটা তার দায়িত্ব।একজন নারীকে যে কারণে সৃষ্টি করা হয়েছে, অথবা একজন নারীকে যে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে একজন পুরুষের পক্ষে তা করা কখনই সম্ভব না। তাই নারীকে ছোট করার কোন কারণ নেই। নর নারী অথবা স্বামী স্ত্রী উভয়ের প্রচেষ্টায় একটি সংসার এবং একটি সমাজ সুন্দর হতে পারে।
পবিত্র কুরআনের সুরাহ তাওবার ৭১ নম্বর আয়াতে মহান আল্লাহ্ তায়ালা বলেছেন, “আর ইমানদার পুরুষ ও ইমানদার নারী একে অপরের খুব ভাল বন্ধু। তাঁরা ভাল কাজে আদেশ দেয় এবং মন্দ কাজে বাধা প্রদান করে”।
রাসুল (সা:) বলেছেন, নারীরা পুরুষের অর্ধাঙ্গিনী/ অর্ধাংশ (তিরমিযি, আবু দাউদ)
মহান আল্লাহ্ তায়ালা বলেন, “তারা তোমাদের পোশাক স্বরূপ এবং তোমরা তাদের পোশাক স্বরূপ।”
উপরোক্ত আয়াত থেকে বোঝা যায়, স্ত্রীর ইজ্জত মান সম্মান রক্ষা করার দায়িত্ব তার স্বামীর। স্ত্রীর কোন খারাপ মানুষের সামনে প্রকাশ না করা স্বামীর মহাগুন। একজন স্বামীর উচিৎ কিভাবে তার স্ত্রীর সম্মান রক্ষা হবে সেদিকে নজর রাখা। কোনভাবেই যেন স্ত্রীর সম্মানহানি না হয়।
পুরুষদের কর্তব্য হল আল্লাহর দায়িত্ব পালনে সবসময় নারীদের বিভিন্নভাবে সহয়তা করা। মায়ের অনেক ত্যাগের ফলে দেশ ও জাতি একটি সুসন্তান লাভ করে। তাই মায়ের প্রতি কোন প্রকার অবহেলার কোন অবকাশ নেই। একজন স্বামীর উপর যে দায়িত্ব আছে সেটাতে যদি সে অবহেলা করে তবে সে সংসারে অবশ্যই অশান্তি নেমে আসবে।

শেয়ার করুন

0 মন্তব্য: